OrdinaryITPostAd

পল্লীকবি জসীমউদ্দীন

 ভুমিকা : 

কবি জসীমউদ্দীন পল্লী  কবি নামে খ্যাতি  অর্জন করেন। কবি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের লেকচারার ছিলেন তার নাম অনুসারে  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় একটি ছাত্রাবাসের নামকরণ করা হয়, "জসীম উদ্দিন ছাত্রাবাস "।ডক্টর দীনেশচন্দ্র সেনের আনুকল্লে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে পল্লীগীতি সংগ্রাহক পদে নিযুক্ত লাভ করেন।

 বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় তাকে সম্মান সূচক ডিলিট ডিগ্রী প্রদান করেন। ১৯৭৬ সালে সাহিত্য সাধনা স্বীকৃতি স্বরূপ একুশে  পদক লাভ করেন। 


পল্লী কবি জসিম উদ্দিন কোথায় জন্মগ্রহণ করেন:

পল্লী কবি জসীমউদ্দীন ১৯০৩ সালে পহেলা জানুয়ারি ফরিদপুর জেলায় তাম্বুল  খানা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন । 

কবি জসীমউদ্দীনের রচিত কবিতা সমূহ :

কবর, রাখাল ছেলে, নিমন্ত্রণ,  পল্লী জননী,  মুসাফির,  খেলোয়ার,  আসমানী,  চাষার ছেলে। 

কবর কবিতার লেখক কে :

কবর কবিতা রচনা করেছেন পল্লী কবি জসীমউদ্দীন।  মাত্রাবৃত্ত ছন্দের রচিত কবিতাটি ১১৮টি পক্ষী আছে কবিতাটি প্রথম প্রকাশিত হয় কল্লোল পত্রিকায় প্রিয়জন হারানোর মর্মান্তীক স্মৃতিচারণ  কবর কবিতার বিষয়বস্তু।   কবিতাতে দাদু শাপলার হাটে তরমুজ বিক্রি করতেন। কবি কবিতার রচনা করেন কলেজে পড়ার সময়ে এবং তার ছাত্র অবস্থাতেই  কবিতাটি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাধ্যমিক পর্যায়ের পাঠ্য বইয়ে তালিকাভুক্ত হয় ।  

কবর কবিতার বিখ্যাত কয়েকটি পংক্তি, কপোল ভাসিয়া যায় দুই নয়নের জলে, 

এইখানে তোর দাদির খবর ডালিম গাছের তলে,। ৩০ বছর ভিজিয়ে রেখেছি দুই নয়নের জলে। 

এতোটুকু তারে ঘরে এনেছিনু সোনার মতন মুখ, পুতুলের বিয়ে ভেঙে গেলোবলে কেঁদে ভাসিয়ে তো বুক, 

এই মোর হাতে কোদাল ধরিয়া কঠিন মাটির তল, গাড়িয়া দিয়াছি কত সোনা মুখ নাও য়ায়ে চোখের জলে । 

বাপের বাড়িতে যাইবার কালে কহিতে ধরিয়া পা, আমারে দেখিতে যাইয়ো কিন্তু উজানতলীর গা।

আমারে ছাড়িয়া এত ব্যথা যার কেমন করিয়া হায়,খবর দেশেতে ঘুমাইয়া রয়েছে নিঝুম নিরালায় । 

পল্লীকবি জসীমউদ্দীনের কাব্যগ্রন্থ সমূহ :

রাখালী, নকশী কাঁথার মাঠ,  সুজন বাদিয়ার ঘাট মা যে জননী কাঁদে,  বালুচর,  ধান ক্ষেত, মাটির কান্না,  রূপবতী, সুচয়িনী। 

জসীমউদ্দীনের প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ কোনটি:

জসীমউদ্দীনের প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ হলো 'রাখালী'

পল্লী কবি জসীমউদ্দীনের শ্রেষ্ঠ কাহিনী কাব্য কোনটি :

পল্লীকবি জসীমউদ্দীনের শ্রেষ্ঠ কাহিনী কাব্য হচ্ছে 'নকশি কাঁথার মাঠ ' পল্লীগীতি প্রচলিত পল্লীগীতিকার চেয়ে ব্যতিক্রমী এ রচনাটিতে তিনি কাহিনীর আবর্তনে অসম্ভব দক্ষতার পরিচয় দে। গ্রন্থটি বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয় । গ্রন্থটির ইংরেজি অনুবাদের নাম 'Field of the embroidery quilt '। এর অনুবদক EM Milford। 

কবি জসীমউদ্দীনের রচিত নাটক সমূহ :

মধুমালা,  পদ্মা পার, পল্লী বধূ, বেদের মেয়ে। 

পল্লী কবি জসীমউদ্দীনের  উপন্যাস কয়টি ও এর নাম কি :

পল্লী কবি জসীমউদ্দীন মাত্র একটি উপন্যাস রচনা করেন এবং এর নাম 'বোবা কাহিনী '।

জসিম উদ্দিনের শিশুতোষ রচনা কয়টি ও কি কি:

এক পয়সার বাঁশি,  ডালিম কুমার, হাসু  

কবি জসীমউদ্দীনের ভ্রমণ কাহিনী সম্পর্কিত রচনা :

চলে মুসাফির, যে দেশে মানুষ বড়,  হলদে পরীর দেশ। 

জসীমউদ্দীনের গানের সংকলন :

রঙ্গিলা নাইয়ের মাঝি,  জারি গান,  গাঙ্গের পাড়। 

কবি জসীমউদ্দীনের আত্মজীবনী সম্পর্কিত রচনা :

জীবন কথা,  ঠাকুরবাড়ির আঙ্গিনায়। 

সুজন বাদিয়ার ঘাট এর রচয়িতা কে :

সুজন বাদিয়ার ঘাট এটি একটি কাব্যগ্রন্থ এর রচয় তাৎপর জসিম উদ্দিন। 

জসীমউদ্দীনের কবর কবিতা কোন পত্রিকায় প্রথম প্রকাশিত হয় :

কল্লোল পত্রিকায় প্রকাশিত হয় জসিম উদ্দিনের  কবর  কবিতা 

কবর কবিতা তাই কতটি পংক্তি রয়েছে :

১১৮ টি পংক্তি আছে কবর কবিতায় 

নকশী কাঁথার মাঠ কি ধরনের কাব্য : 

নকশিম কাঁথার মাঠ এটি গীতিকাব্য 

জসীমউদ্দীনের কোন গ্রন্থটি বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে :

নকশী কাঁথার মাঠ রচনাটি বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে 

চলে মুসাফির ভ্রমণ কাহিনীর মূলক গ্রন্থটি কে রচনা করেন :

চলে মিসাফির ভ্রমন কাহিনীটি রচনা করেন পল্লী কবি জসিম উদ্দিন 

বাংলা সাহিত্যে কে পল্লী কবি নামে খ্যাত :

বাংলা সাহিত্যে জসীমউদ্দীন পল্লী কবি নামে খ্যাত। 

জসীমউদ্দীনের, আসমানী, চরিত্রটির বাড়ি কোথায় :

জসীমউদ্দীনের আসমানী চরিত্রটির বাড়ি হচ্ছে ফরিদপুর জেলায় 

কবি জসিম উদ্দিনের শ্রেষ্ঠ কাহিনী কাব্য কোনটি:

কবি জসীমউদ্দীনের শ্রেষ্ঠ কাহিনী কাব্য নকশী কাঁথার মাঠ  

জসীমউদ্দীনের কবর কবিতাটির বিষয়বস্তু কি :

জসীমউদ্দীনের খবর কবিতার বিষয়বস্তু হচ্ছে 'প্রিয়জন হারানোর মর্মান্তিক স্মৃতিচারন

পল্লী কবি জসীমউদ্দিন কখন  মৃত্যুবরণ করেন :

পল্লী কবি জসীমউদ্দীন ১৯৭৬ সালে ১৩ই মার্চ তিনি ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন। 

লেখকের কথা :

কনটেন্টেএ দেয়া সকল তথ্য ১০০% সঠিক এবং নির্ভুল, যা বিভিন্ন ধরনের চাকরি নিয়োগ পরীক্ষা বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা সহ বিভিন্ন প্রতিযোগিতা মূলক পরীক্ষা এই সব তথ্য হতে প্রশ্ন আসে । এসব তথ্য জেনে আপনারা যদি উপকৃত হন তাহলে মন্তব্য করুন এবং শেয়ার করে অপরকে জানার সুযোগ করে দেন। 




এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ১

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ২

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ৩

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ৪